April 1, 2020

কুলাউড়ায় কোয়ারেন্টাইন না মেনে বিয়ে ১০ হাজার টাকা জরিমানা

কুলাউড়া প্রতিনিধি : কুলাউড়ায় হোম কোয়ারেন্টাইন না মেনে বিয়ের প্রস্তুতি নেওয়ায় সৈয়দ জিয়াউর রহমান নামে এক ওমান প্রবাসীকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। তিনি উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের চকেরগ্রামের বাসিন্দা মৃত মাস্টার হাবিবুর রহমানের ছেলে।
১৯ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টায় ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নুরুল হক, কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইয়ারদৌস হাসান, ওসি (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্ত্তী।
জানা গেছে, প্রবাসী জিয়াউর রহমান ১৫ মার্চ ওমান থেকে দেশে ফিরেন। প্রশাসনের নির্দেশে থাকে সরকারি নিয়ম মেনে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে তাঁর বাড়িতে থাকতে বলা হয়েছে। কিন্তু তিনি সেই নিয়ম না মেনে এলাকায় ঘুরাঘুরি করে বিয়ের প্রস্তুুতি নিচ্ছিলেন। ২০ মার্চ উপজেলার ভাটেরা ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের এক ব্যক্তির মেয়ের সাথে তাঁর বিয়ে হওয়ার কথা। সেই লক্ষে বৃহস্পতিবার বেলা ২টায় প্রবাসী জিয়াউর রহমানের বাড়িতে আকদ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বাড়িতে উভয় পরিবারের অনেক লোকজনের সমাগম ঘটে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টি এম ফরহাদ চৌধুরীসহ প্রশাসনের অন্য কর্মকর্তারা তাঁর বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হন। এ সময় প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে অধিকাংশ আত্মীয়-স্বজন বাড়ির পেছনের সীমানা প্রাচীর টপকে সটকে পড়ে। পরে উপজেলা প্রশাসন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন এবং প্রবাসীকে কোয়ারেন্টাইন থাকার কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী বলেন, হোম কোয়ারেন্টাইন না মেনে বিয়ের প্রস্তুুতি নেওয়ায় দন্ডবিধি আইন ১৮৬০ এর ২৬৯ ধারায় এ জরিমানা আদায় করা হয়েছে। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস থেকে সাধারণ জনগণকে সচেতন করতে আমরা উপজেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ ও পুলিশ প্রশাসন বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষজনকে সচেতন করার জন্য কাজ করে যাচ্ছি।

কুলাউড়ায় নববধুকে নিয়ে কোয়ারেন্টাইনে বর!

সর্বশেষ সংবাদ