November 19, 2019

স্বেচ্ছাসেবকলীগের সম্মেলন প্রস্তুতি চলছে জোর কদমে: শীর্ষ নেতৃত্ব নিয়ে যতো জল্পনা

বিশেষ প্রতিনিধি : বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের আগামী ১৬ নভেম্বর শনিবার সকাল ১১টায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের তৃতীয় জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনের দ্বিতীয় সেশন ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত হবে। এই সম্মেলনকে ঘিরে একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। যে কমিটির আহবায়ক বর্তমান কমিটির সিনিয়র সহ সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ আর সদস্য সচিব বর্তমান কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী মেসবাউল হোসেন সাচ্চু।
আগামী ১৬ নভেম্বর জাতীয় সম্মেলন ঘিরেই চলছে জোর কদমে প্রস্তুতি। ইতিমধ্যে সম্মেলনের অফিসিয়াল পোষ্টার তৈরী করার কাজ হয়েছে। বর্তমানে পোষ্টার লাগানো ও বিতরণের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীরা। ইতিমধ্যে কাজ শুরু করেছে বিভিন্ন উপ কমিটির সদস্যরাও। সম্মেলন উপলক্ষ্যে ১২ উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সম্মেলনের প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চাইলে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব গাজী মেসবাউল হোসেন সাচ্চু বলেন, একটি সুন্দর, পরিচ্ছন্ন ও সফল সম্মেলন করার উদ্দেশ্যে আমরা জোর প্রস্তুতি গ্রহণ করছি। আশা করি ১৬ নভেম্বর জাতীয় সম্মেলন একটি সুন্দর, পরিচ্ছন্ন, সফল সন্মেলন হিসেবে উপস্থাপন করতে সক্ষম হব।

সম্মেলন সফল করার প্রস্তুতির সাথে একইভাবে জল্পনা-কল্পনা চলছে আগামীর স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতৃত্ব নিয়ে। ইতিমধ্যে পূর্বের কমিটির শীর্ষ নেতৃত্বের কেউ শীর্ষ নেতৃত্বে আসছেনা এটি নিশ্চিত হওয়া গেছে। স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতিকে কেসিনো সম্পৃক্ততার কারণে সংগঠনের কর্মকান্ড থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। একইভাবে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিভিন্ন অভিযোগের কারণে স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদককেও সংগঠনের কার্য্যক্রম থেকে অব্যাহতি প্রদান করেছে। এই প্রেক্ষিতে নতুন নেতৃত্বের হাতেই যাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকলীগের শীর্ষ নেতৃত্ব এটি নিশ্চিত করা হয়েছে আওয়ামীলীগ সংশ্লিষ্ট সূত্রে।
তাই এখন সবার মনেই প্রশ্ন কাদের উপর দায়িত্ব অর্পণ হচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকলীগের শীর্ষ নেতৃত্বের? এই বিষয়ে এখনই সীদ্ধান্ত হয়নি কার হাতে অর্পণ হচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকলীগের শীর্ষ নেতৃত্ব। তবে এক্ষেত্রে পূর্বের অভিজ্ঞতার সাথে সাথে দেখা হবে ব্যক্তিগত চরিত্র, অতীত আন্দোলন সংগ্রামে ভূমিকা, দূর্ণিতিমুক্ত ক্লিন ইমেজ, দলের প্রতি কমিটমেন্ট। এই সব কিছু বিবেচনায় বর্তমানে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে এগিয়ে রয়েছেন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক ও সদস্য সচিব। সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক নির্মল রঞ্জন গুহ সভাপতি পদে ও সদস্য সচিব গাজী মেসবাউল হোসেন সাচ্চু সাধারণ সম্পাদক পদে দেখা যেতে পারে। কেননা, এই দু’জনই ক্লিন ইমেজের নেতা হিসেবে পরিচিত। সৎ, নির্লোভ, ত্যাগী এই নেতারা দু’জনই একাধিকবার ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের। ফলে স্বেচ্ছাসেবকলীগের দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা তাদের রয়েছে। দু’জনেরই রয়েছে সমৃদ্ধ রাজনৈতিক ক্যারিয়ার। সকল আন্দোলন সংগ্রামে সামনে থেকে নেতৃত্বও দিয়েছেন দু’জনই।
এই দু’জনের বাইরে আলোচনায় রয়েছেন সভাপতি পদে কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ-সভাপতি মঈন উদ্দীন মঈন, আরেক সহ-সভাপতি আফজালুর রহমান বাবু।
সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় রয়েছেন স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রীয় চার সাংগঠনিক সম্পাদক ও দফতর সম্পাদক। যদিও এদের সবারই রয়েছে অভিজ্ঞতার ঘারতি।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব অনুসন্ধানের বিশেষ দায়িত্ব দিয়েছেন আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিমকে। তিনি স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি।
কেমন নেতৃত্ব আসতে পারে এমন এক প্রশ্নের জবাবে স্বেচ্ছাসেবক লীগের আসন্ন কাউন্সিল সমন্বয়ের দায়িত্বে থাকা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ‘আমরা সৎ যোগ্য পরিচ্ছন্ন নেতা চাই। যারা ত্যাগী দলে দীর্ঘ দিন সময় দিয়েছে যাদের বিরুদ্ধে কোনো অসততার অভিযোগ নেই এমন লোকই হবেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা। এখানে অনুপ্রবেশকারীদের ঢুকার কোনো সুযোগ নেই। যারা কোনো দিন এই দল করেনি তাদেরও কোনো পদে থাকার সুযোগ থাকবে না

সর্বশেষ সংবাদ