December 11, 2019

কুলাউড়ায় যানজট নিরসনে মুক্ত স্কাউট গ্রুপের ব্যতিক্রমী ঈদ সেবা

মাহফুজ শাকিল : পবিত্র ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে কুলাউড়া পৌর শহরের যানজট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশকে সহযোগিতা করতে মাঠে নেমেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কুলাউড়া মুক্ত স্কাউট গ্রুপের সদস্যরা। ৭ আগষ্ট থেকে শুরু হয়ে কুলাউড়া মুক্ত স্কাউট গ্রুপ আনুষ্ঠানিক ভাবে তাঁদের এই ব্যতিক্রমী ঈদ সেবা কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন কুলাউড়া থানার ওসি মোঃ ইয়ারদৌস হাসান।
সরেজমিন শহর ঘুরে দেখা গেছে, কুলাউড়া শহরের ভেতর দিয়ে যাওয়া মৌলভীবাজার-বড়লেখা আঞ্চলিক মহাসড়কের দুই পাশে বিভিন্ন বিপণিতে ঈদের কেনাকাটা চলছে। শহরের দক্ষিণ বাজার, রেলস্টেশন চৌমুহনী, উত্তর কুলাউড়ার আউটার ও উত্তর বাজার এলাকায় স্কাউটের সদস্যরা যানজট নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন। ট্রাফিক আইন মেনে চলতে তাঁরা গাড়ী চালকদের পরামর্শ ও অনুরোধ করছেন। এছাড়া ফুটপাতে গাড়ি দাঁড় করিয়ে না রাখতেও অনুরোধ করছেন। পর্যাপ্ত লোকবলের অভাবে ট্রাফিক পুলিশ যানজট নিরসনে হিমশিম খাচ্ছিলো। মুলত ট্রাফিক পুলিশকে সহায়তা দেয়ার জন্য প্রতি দিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সংগঠনের ৩০ জন সদস্য ধারাবাহিকভাবে এ কার্যক্রম পরিচালনায় সক্রিয় রয়েছেন।
কুলাউড়া মুক্ত স্কাউট গ্রুপের সম্পাদক শামসুদ্দিন বাবু বলেন, ঈদে কেনাকাটা করার জন্য উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন শহরের বিপণিগুলোতে ভীড় জমান। এ কারণে কুলাউড়া শহরে প্রতিনিয়ত যানজট লেগেই থাকে। তাই আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে শহরের ব্যস্ত এলাকায় যানজট নিয়ন্ত্রণে ঈদে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আমাদের এই সেবা কার্যক্রম চলবে ঈদের রাত পর্যন্ত।
কুলাউড়া থানার ওসি মোঃ ইয়ারদৌস হাসান বলেন, শহরের যানজট নিয়ন্ত্রণে ট্রাফিক পুলিশের পাশাপাশি স্কাউট সদস্যরা কাজ শুরু করেছেন। আমরা আশা করি উভয়ের সম্মিলিত প্রচেষ্ঠায় যানজট নিরসন করা সম্ভব। মুক্ত স্কাউট তাঁদের এ কাজের প্রশংসার দাবি রাখে।
কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম সফি আহমদ সলমান বলেন, ঈদকে কেন্দ্র করে কুলাউড়ার ব্যবসা জমে ওঠেছে। ক্রেতাদের পাশাপাশি যানবাহনের পরিমান কয়েকগুন বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে যানজট অতিমাত্রায় বেড়ে যাওয়ায় ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের মধ্যে বিরূপ প্রভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছিলো। কিন্তু বুধবার সকাল থেকে মুক্ত স্কাউটের সদস্যরা প্রখর রোদ এবং বৃষ্টি উপেক্ষা করে যানজট নিরসনে কাজ করার কারনে তা অনেকটা কমে গেছে।
উল্লেখ্য, গত ২০১৫ সাল থেকে ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে তাঁরা এ কার্যক্রম চালিয়ে আসছেন। বছরের দুই ঈদ, পুজো উৎসবসহ বিভিন্ন উৎসব ও ব্যস্ততম সময়ে কুলাউড়া মুক্ত স্কাউট গ্রুপ এধরণের কার্যক্রম পরিচালনা করে। তাছাড়া বিভিন্ন প্রাকৃতিক দূর্যোগেও তারা এগিয়ে আসে। এমনকি অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের পাশাপাশি মুক্ত স্কাউট গ্রুপের সদস্যরাও আগুন নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে কুলাউড়ায় সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ