July 15, 2019

কুলাউড়া বিএনপির কাউন্সিল আজ-আলোচনায় বাচ্চু-রেদওয়ান

বিশেষ প্রতিনিধি : ম্যালাদিন পর আজ ১৫ জুন শনিবার অনুষ্ঠিত হবে বহুল প্রতীক্ষিত কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির সম্মেলন ও কাউন্সিল। দীর্ঘদিন পৃথক পৃথক ভাবে দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করে আসলেও এখন ঐক্যবদ্ধ কুলাউড়া উপজেলা বিএনপি। এই সম্মেলন ও কাউন্সিলকে ঘিরে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে নেতাকর্মীদের মাঝে। হামলা-মামলা, জেল-জুলুম ও নির্বাচন পরবর্তী এ কাউন্সিলই নতুন উদ্যোমে বিএনপিকে দাঁড় করাবে বলে অভিমত নেতাকর্র্মীদের। কাউন্সিলারদের ভোটে যোগ্য নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হবে বলে দৃঢ় বিশ^াস তৃণমূলের নেতাদের।
তিন পদে ১৩ জন মনোনয়ন ক্রয় করলেও সভাপতি ও সম্পাদক পদে দুজন শেষমুহুর্তে কাউন্সিল থেকে সরে যান। সভাপতি পদ থেকে সাবেক সভাপতি কামাল উদ্দিন আহমদ জুনেদ, সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক জয়নুল ইসলাম জুনেদ সরে দাঁড়ানোয় সভাপতি পদে কাউন্সিলে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন উপজেলা বিএনপির সাবেক (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি ও পৌর প্যানেল মেয়র, কারা নির্যাতিত নেতা জয়নাল আবেদীন বাচ্চু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক, জেলা বিএনপির সদস্য ও কারা নির্যাতিত নেতা এমএ মজিদ। সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন সাবেক ছাত্রনেতা ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক, জেলা বিএনপির সদস্য রেদওয়ান খাঁন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক, জেলা বিএনপির সদস্য বদরুজ্জামান সজল, উপজেলা বিএনপির সাবেক (ভারপ্রাপ্ত) সাংগঠনিক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন খাঁন।
সভাপতি পদ থেকে কামাল উদ্দিন আহমদ জুনেদ সরে দাড়ানোয় পৗর প্যানেল মেয়র, জয়নাল আবেদীন বাচ্চুর পথ অনেকটা সুগম হয়েছে বলে ভোটাররা জানান। সাধারন সম্পাদক পদ নিয়ে সবার আগ্রহ একটু বেশী। জেলা বিএনপির সদস্য রেদওয়ান খাঁন ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক, জেলা বিএনপির সদস্য বদরুজ্জামান সজল এর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস পাওয়া গেলেও শেষ মুহুর্তের নির্বাচনী প্রচারনায় অনেকটা সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছেন রেদওয়ান খাঁন।
প্রয়াত অর্থমন্ত্রী এম. সাইফুর রহমানের কাছের মানুষ হিসেবে পরিচিত রেদওয়ান খান কুলাউড়া ছাত্রদলের কিংবদন্তি সাবেক এই ছাত্রনেতা ছাত্রদলকে সুসংগঠিত করতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলায় মৃত্যুর সাথে যুদ্ধ করে এখনো শরীরে ৮০টা সেলাইয়ের ক্ষত চিহ্নের যন্ত্রনা বহন করে চলছেন। তৃণমূল বিএনপিকে সু-সংগঠিত করতে নিরলস ভাবে এখনো কাজ করে যাচ্ছেন। যার হাত ধরে অসংখ্য নেতৃত্ব তৈরি হয়েছে, যারা এখন বিএনপির নেতৃত্ব দেয়ার মত সামর্থ আছে। কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি হওয়ার পর মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতির ও যুগ্ম আŸায়ক এর গুরু দায়িত্ব সঠিক ভাবে পালন করেছিলেন।
তারপর উপজেলা সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নির্বাচিত হন এবং সেখানে ও সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। তার ধারাবাহিকথায় উপজেলা বিএনপির টানা তিন বার সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হন। রাজনৈতিক নেতৃত্বের সফলতায় তিনি উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।
রেদওয়ান খাঁন জীবনের বেশির ভাগ সময় রাজনীতির পিছনে সময় কাটিয়েছেন, বার বার আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হাতে নির্যাতিত হয়েছেন, একাধিকবার কারাবরণ করেছেন। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন সহ সকল আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতেন। উপজেলার এমন কোন ওয়ার্ড নেই যে রেদওয়ান খান যান নি।
সকল ইউনিয়নের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে গিয়ে বিএনপিকে সাংগঠনিক ভাবে শক্তিশালী করেছেন। কর্মীরা তার কাছে ছুটে এলে নিজের ভাইয়ের মত স্নেহ করে সমস্যা সমাধান করে দিতেন। রাজনীতি করতে গিয়ে জীবনে কিছুই করেননি, সব সময় রাজনীতিকে গুরুত্ব দিতেন। অনেকদিন পর কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্টিত হতে যাচ্ছে আগামীকাল ১৫ জুন। উক্ত নির্বাচনে রেদওয়ান খাঁন সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
তাঁকে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত করতে সম্মানীত ভোটাররা তাঁদের মূল্যবান ভোট দিয়ে আপোষহীন দেশনেত্রীর মুক্তির আন্দোলনকে আরও বেগবান করতে তিনি সকল ভোটারদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন। ১৩ ইউনিয়নের ভোটারদের সাথে আলাপ করলে সভাপতি হিসেবে জয়নাল আবেদীন বাচ্চু ও সাধারন সম্পাদক হিসাবে রেদওয়ান খান শেষ হাসি হাসবেন বলে ভোটাররা জানান।
নির্বাচনী তফশীল অনুসারে কাউন্সিলরের সংখ্যা হচ্ছে প্রতিটি ইউনিয়নে কমিটি ভুক্ত ৭১ জন করে মোট ১৩টি ইউনিয়নে ৯২৩ জন এবং আহবায়ক কমিটির ১৩ জন সর্বমোট ৯৩৬ জন।
কাউন্সিলে ভোটার হচ্ছেন উপজেলা আহবায়ক কমিটির ১৩ জন, সাথে ১৩ ইউনিয়নের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক মিলে ২৬ জন। মোট ৩৯ জন।
অত:পর নির্বাচিতরা সাবেক আহবায়কের সাথে পরামর্শ করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কুলাউড়া উপজেলা কমিটি গঠন করে মৌলভীবাজার জেলার অনুমোদন নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করবে।
আজ ১৫ জুন শনিবার বিকাল তিনটায় কুলাউড়া স্কুল চৌমুহনীস্থ কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হবে সম্মেলন ও কাউন্সিল। প্রধান অতিথি থাকবেন জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি এম নাসের রহমান। বিশেষ অতিথি থাকবেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান। সভাপতিত্ব করবেন উপজেলা বিএনপির আহবায়ক অ্যাডভোকেট আবেদ রাজা।

উজ্জীবিত নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ কুলাউড়া বিএনপির কাউন্সিল আজ

সর্বশেষ সংবাদ