April 23, 2019

শুদ্ধসুরে সবাইকে জাতীয় সংগীতের চর্চা করতে হবে-সেলিনা চৌধুরী

বিশেষ প্রতিনিধি : ‘বিবেক, বুদ্ধি ও ভালোবাসা দিয়ে একটি নির্ভেজাল, সুশৃঙ্খল সমাজ বিনির্মাণে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। সুশিক্ষার পাশাপাশি সুন্দর, সভ্য ও প্রীতিময় সমাজের অনেক বড় আশা। সমাজের ব্যক্তিগত একটি চরিত্র হলো অনেক বেশী আশা করা। আমার লেখা জ্যোর্তিময়ীর স্বপ্নভঙ্গ লেখনীতে ভালোবাসা, বিবেক ও স্বেচ্ছাচারিতার বিস্তর আলোচনা করেছি। স্বাধীনতা আর স্বেচ্ছাচারিতা এক নয়। স্বাধীনতা মানে এটা নয় আপনি যা ইচ্ছা তাই করবেন। স্বাধীনতা মানে হলো নিজের সবটুকু ভালোভাবে দেখা এবং তা উপস্থাপন করা।’
প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘আজকাল বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বাচ্চাদেরকে আমাদের জাতীয় সংগীত ভুলভাবে শিখানো হচ্ছে। এটা কিন্তু একদমই ঠিক না। একটা দেশের জাতীয় সংগীত অনেক আবেগের, ভালোবাসার। তাই শুদ্ধসুরে আমাদের সবাইকে জাতীয় সংগীতের চর্চা করতে হবে।’আমরা সবাই চাই একটা কল্যাণময় জগৎ। আমরা যা করবো শুদ্ধ ও শৃংখলভাবে করবো। তিনি আরো বলেন, ‘একটি রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় রাস্তার উপর বসে থাকা একটি সাপের লেজে পা দিলে আপনাকে সে ছোঁবল মারবে, আর যদি নীরবে পাশ কাটিয়ে হেঁটে চলে যান সে কিছুই করবে না। তাই মনে রাখতে হবে সমাজে চলার পথে কাঁদা থাকবেই, সেই কাঁদার ছিটা যেন তোমার গায়ে না লাগে সেদিকে সতর্ক থাকতে হবে।’
সিলেট ম্যাটস্ এবং সিলেট মেডিকেল এ্যাসিসট্যান্ট ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন আয়োজিত মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার সিলেটের জিন্দাবাজারস্থ এ্যালিগ্যান্ট মার্কেটে সিলেট ম্যাটস্ এর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা,পুরষ্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ঢাকাস্থ লাইলাক কমিউনিকেশনসের চেয়ারপার্সন, সাপ্তাহিক সীমান্তের ডাক পত্রিকার সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি, বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক ও কলামিস্ট সেলিনা চৌধুরী।সিলেট ম্যাটস্ ও সিলেট মেডিকেল এ্যাসিসট্যান্ট ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন এর উদ্দেশে তিনি বলেন, সংগঠনের সকল ভালো কাজে আমি একজন সারথী হয়ে সর্বোচ্চ চেষ্ঠা দিয়ে কাজ করে যাবো। সংগঠনের ভবিষ্যৎ আরও সুদৃঢ় ও শক্তভাবে দাড় করাতে আমি সবধরণের সহযোগীতা করবো। শিক্ষা ও সংস্কৃতি স্বনির্ভর ও সুশৃঙ্খল হোক এটা আমি ও আমরা প্রত্যাশা করছি।’
সিলেট ম্যাট্সের অধ্যক্ষ ডাঃ প্রমথেশ কুমার দাসের সভাপতিত্বে ও ইংরেজী প্রভাষক এম সারোয়ার জাহান মামুনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুলাউড়া ইয়াকুব তাজুল মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ড. রজত কান্তি ভট্টাচার্য্য, সিলেট ম্যাট্স এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিলেট মেডিকেল এ্যাসিস্ট্যান্ট ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক বিমলেন্দু পাল, যুক্তরাজ্য প্রবাসী ও মোটিভেশনাল স্পিকার এম এ কুদ্দুছ, সমাজসেবক ও শিক্ষানুরাগী বাবুল দেব, সিলেট ম্যাট্স এর সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ সুধাসিন্ধু দাস ও ডাঃ আব্দুল করিম প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রাইম ব্যাংক বড়লেখা শাখার ব্যবস্থাপক নাসির উদ্দিন আহমদ লাভলু ও কুলাউড়া শাখার ব্যবস্থাপক কামরুল হোসেন ফাত্তাহ, সীমান্তের ডাকের বার্তা সম্পাদক এস আলম সুমন, কালের কণ্ঠ প্রতিনিধি মাহফুজ শাকিলসহ সিলেট ম্যাট্সের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।

সর্বশেষ সংবাদ