May 20, 2019

খ্রিস্টান জঙ্গির মসজিদে হামলার নেপথ্যে মুসলিম বিদ্বেষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলায় নিহত হয়েছেন ৪৯ মুসলিম মুসল্লি। ব্রেনটন ট্যারেন্ট নামের হামলাকারী নৃশংস এ হত্যাযজ্ঞের আগে ৭৩ পৃষ্ঠার একটি একটি ইশতেহার প্রকাশ করেন। তার প্রকাশিত ইশতেহার থেকে খুব স্পষ্ট যে হামলাকারী একজন খ্রিষ্টীয় জঙ্গীবাদের সমর্থক।

খ্রিষ্টীয় জঙ্গিবাদের ওই সমর্থক যে বন্দুক দিয়ে হামলা চালিয়েছেন সেখানে তার দলের অনুসারী নেতাদের নাম রয়েছে। আর তার প্রকাশিত সেই ইশতেহারে ঘাতক স্পষ্ট করে বলেছেন, তিনি মুসলমানদের ঘৃণা করেন এবং যারা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে তারা নিজের রক্তের সঙ্গে প্রতারণা করেছে।

তার ইশতেহার থেকে আরও একটি স্পর্শকাতর তথ্য বেরিয়ে এসেছে। হামলাকারী নিজেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উগ্র সমর্থক ক্যানডিস ওউনসের কাছ থেকে অনুপ্রারিত হওয়ার কথাও জানিয়েছে।

শান্তির দেশ হিসেবে পরিচিত নিউজিল্যান্ডের দুটি মসজিদে হামলা করে ৪৯ জনের প্রাণ কেড়ে নেওয়া ও ৪৮ জনকে আহত করা সেই উগ্র খ্রিষ্টীয় মতাদর্শের কট্টোর সমর্থক ঘাতক ট্যারেন্ট অনেকদিন ধরেই এই হামলার প্ররিকল্পনা করেছেন। তাকে সমর্থন যুগিয়েছেন তার দলের শীর্ষ নেতারা।

ট্রাম্পের উগ্র সমর্থক ও ঘাতকের গুরু ক্যানডিস ওউনস পরিচিত সম্পর্কে ব্রেনটন ট্যারেন্ট ইশতেহারে লিছেখেন, ‘সার্বিকভাবে যিনি আমাকে বেশি প্রভাবিত করেছেন, তিনি হচ্ছেন ক্যানডিস ওউনস। যখনই তিনি কথা বলেন, আমি বিমোহিত হয়ে যাই।’

এই হামলা ২০১৭ সালের স্টকহোমের সন্ত্রাসী হামলার প্রতিশোধ হিসেবেও উল্লেখ করেন ব্রেন্টন। তিনি জানান, ওই হামলায় ১২ বছর বয়সী এব্বা আকারলান্ড নামের একটি মেয়ে নিহত হয়েছির। উজবিকিস্তান থেকে আসা এক শরণার্থী এই হামলা চালিয়েছিল। আর এব্বার মৃত্যু তাকেই হামলা করতে প্রথম উৎসাহ দিয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

নিউজিল্যান্ডের মসজিদে মুসলিম মুসল্লিদের ওপর হামলার পূর্বাভাস দিয়ে ৭৩ পাতার ইশতেহারে ৮ বছর বয়সী ব্রেনটন ট্যারেন্ট মুসলমানদের প্রতি ঘৃণা প্রকাশ করে সে লিখেছে, ‘মুসলমানদেরকে আমি ঘৃণা করি। যারা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে তারা নিজের রক্তের সঙ্গে প্রতারণা করেছে বলে সে দাবি করেছে।’

ঘাতক ট্যারেন্ট তার ইশতেহারে আরও লিখেছে, ‘আমি ২০১১ সালে নরওয়ের ওসলোতে ৭৭ জনকে হত্যাকারী অ্যান্ডারর্স ব্রেইভিকসহ অন্য হামলাকারীদের কাছ থেকে অনুপ্রাণিত হয়েছি।’ তার দাবি, মুসলমানসহ অন্যদেরকে অনুপ্রবেশকারী আর একদিন শেতাঙ্গদের বিজয় হবে।

সর্বশেষ সংবাদ