April 23, 2019

‍‍‘প্রার্থনা করছিলাম তার গুলি যেন শেষ হয়ে যায়‍‍’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদ আল নূরে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে।তবে অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা। গোলাগুলির ঘটনায় বেঁচে ফিরে আসা একজন বলেন গুলি শুরু হওয়ার পর আল নূর মসজিদের জানালা ভেঙে মানুষ পালাতে থাকে। “সে (হামলাকারী) সবাইকে গুলি করতে থাকে। যাকেই তার মনে হয়েছে যে সে বেঁচে আছে, তাকে লক্ষ করে সে আবার গুলি চালায়”, রেডিও নিউজিল্যঅন্ডকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন তিনি। আরেকজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেন অন্তত ২০ মিনিট ধরে গোলাগুলি চলে। তিনি বলেন, “আমি আসলে শুধু একটা প্রার্থনাই করছিলাম। তার (হামলাকারীর) গুলি যেন শেষ হয়ে যায়।” পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ বলেছেন, বন্দুকধারীর হামলায় গুরুতর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। পুলিশ পরিস্থিতি মোকাবিলায় সম্পূর্ণ সক্ষমতা নিয়ে কাজ করছে। তবে এখনো মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতি বিরাজ করছে। বাসিন্দাদের ক্রাইস্টচার্চ সড়ক দিয়ে চলাচলে নিষেধ করা হয়েছে এবং পরবর্তী আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত ঘর থেকে বের না হতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্কুলগুলো থেকেও কাউকে বের না হতে বলা হয়েছে। এ ঘটনায় নিন্দা প্রকাশ করে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডের্ন টুইটে বলেছেন, ‘ক্রাইস্টচার্চে নজিরবিহীন সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। নিউজিল্যান্ডে সন্ত্রাসী হামলার জায়গা নেই। ক্ষতিগ্রস্ত অনেকে নিউজিল্যান্ডের অভিবাসী সম্প্রদায়ের। নিউজিল্যান্ডই তাদের বাড়ি। তারা আমাদের লোক।’ তিনি পুলিশের নির্দেশ মেনে ক্রাইস্টচার্চের বাসিন্দাদের বাড়িতে অবস্থান করতে অনুরোধ জানান। প্রধানমন্ত্রী জানান, পুলিশ কমিশনার স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটায় বিবৃতি দেবেন। সন্ধ্যায় তিনি আবার সবশেষ অবস্থা জানাবেন বলে জানান। এখন পর্যন্ত শহীদরে সংখ্যা দাঁড়িয়ে ২ জন বাংলাদেশিসহ ৪৯ জনে।গুরুতর আহত ৩০ জন।

সর্বশেষ সংবাদ