March 19, 2019

২৪০ কোটি আয়েও সন্তুষ্ট নন পরিচালক!

চলতি বছরের অন্যতম ব্যবসাসফল সিনেমা ‘সিম্বা’। এ ছবি শুধু দর্শককে বিনোদন দেয়নি, চিত্র সমালোচকদেরও প্রশংসা পেয়েছে। বক্স অফিসে অসাধারণ সাফল্য পেয়েছে। তবে এতকিছুর পরেও মন ভেজেনি রোহিত শেঠির। অবশ্য তার কারণও রয়েছে।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এফআইসিসিআই-২০১৯ কনফারেন্সে ভারতে সিনেমা হল বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন রোহিত শেঠি। বলেন, প্রেক্ষাগৃহ সংখ্যা বাড়ানো দরকার, যাতে অধিক সংখ্যক মানুষ সিনেমা দেখতে পারে। আর এতে আরো আয় বাড়বে।

রোহিত বলেন, তাঁর দেশের জনসংখ্যা ১৩৫ কোটি, কিন্তু ‘সিম্বা’ দেখেছেন মাত্র দুই কোটি মানুষ। আরেক হিট সিনেমা ‘দঙ্গল’-এর সঙ্গে তুলনা করে তিনি বলেন, এ ছবিটি দেখেছেন চার কোটি মানুষ।ছোট শহরগুলোতে আরো প্রেক্ষাগৃহ নির্মাণের তাগিদ দিয়ে এ ব্যাপারে সরকারের সহায়তা কামনা করেন রোহিত।

“আমাদের আরো থিয়েটার ও সরকারের সাহায্য দরকার। ছোট শহরগুলোতেও প্রেক্ষাগৃহ থাকা উচিত। ‘সিম্বা’ এত হিট হওয়া সত্ত্বেও মাত্র দুই কোটি মানুষ এটি দেখেছে। ‘দঙ্গল’ দেখেছে চার কোটি মানুষ। কিন্তু দেশের জনসংখ্যা ১৩৫ কোটি, সে তুলনায় এ সংখ্যা কিছুই নয়। চার কোটি মানুষ সিনেমা দেখলেও তা মোট জনসংখ্যার দশ শতাংশ হয় না”, ওই অনুষ্ঠানে বলেন রোহিত শেঠি।

রোহিত বলেন, তাঁর দেশে দশ হাজার প্রেক্ষাগৃহ রয়েছে। সেগুলোতে রয়েছে নানা সীমাবদ্ধতাও। হল মালিককে নানা সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়।‘রক্ষণাবেক্ষণ, বিল, জমি, বিভিন্ন ব্যয়সহ নানা ইস্যু মেইনটেইন করতে হয় থিয়েটার মালিকদের। আমার মনে হয়, সরকারের সঙ্গে বসে কিছু করা দরকার। কীভাবে থিয়েটার মালিকদের সহায়তা করা যায়, সে ব্যাপারে ভাবতে হবে। কীভাবে আরো প্রদর্শন বাড়ানো যায়, সে পথও বের করতে হবে’, বলেন রোহিত।

‘সিম্বা’র সাফল্যের পর ‘সূর্যবংশী’ ছবির কাজ করছেন নির্মাতা রোহিত শেঠি। এতে প্রধান চরিত্রে রয়েছেন অক্ষয় কুমার।

সর্বশেষ সংবাদ