May 20, 2019

কমলগঞ্জে ড্রেজার মেশিনের শব্দ দুষনের কবলে দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি : ধলাই নদী থেকে বালু তোলার ড্রেজার (বোম্বা) মেশিনের শব্দ দুষনের কবলে পড়ে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভাধীন আলেপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রায় দেড় শতাধিক কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পাঠগ্রহন ও পাঠদানে বিঘœ সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষা প্রতিষ্টানের প্রধান শিক্ষক। বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টায় সরজমিন ধলাই নদী ঘেষা আলেপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যালয় থেকে ৫০ গজ অদূরে ধলাই নদী থেকে ড্রেজার (বোম্বা) মেশিনের মাধ্যমে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। আর এ মেশিনটির বিকট শব্দে বিদ্যালয়সহ আশপাশের এলাকাটি ভারী হয়ে উঠেছে। এদিকে পৌর এলাকার কুমড়াকাপন গ্রামেও একই অবস্থা। অবাধে বোমা মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। শব্দদুষনের ফলে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় মারাত্মক বিঘœ ঘটছে। দেখার যেন কেউ নেই।
এবিষয়ে অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রদীপ কুমারের সাথে আলাপকালে তিনি জানান, প্রায় দু’বছর থেকে কিছু প্রভাপশালী মহল বিদ্যালয়ের নিকটেই ধলাই নদী থেকে ড্রেজার (বোম্বা) মেশিনের মাধ্যমে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বালু উত্তোলন করে যাচ্ছেন। আর এর ফলে আমাদের বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করাতে চরম বিগ্ন সৃষ্টি করছে। শিক্ষার্থীদের মনোযোগ ক্ষুন্ন করছে প্রতিনিয়ত। এ ব্যাপারে আমরা সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্তৃপক্ষসহ সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক এর কাছে অভিযোগ করেও কোন ফল পাইনি।
আলেপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর অভিভাবক সইদুন বেগম, মন্নান মিয়া জানান, ড্রেজার (বোম্বা) মেশিনের শব্দ দুষনের কারণে আমাদের শিশুরা বিদ্যালয়ে যেতে চায়না।
কমলগঞ্জ বহুমুখী মডেল সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর অভিভাবক নুরুল ইসলাম জানান, মেশিনের শব্দ দুষনের কারণে আমাদের ছেলে মেয়েদের লেখাপড়া নষ্ট হচ্ছে। দিন নেই, রাত নেই আজ দু’তিন বছর যাবৎ একটি প্রভাবশালী মহল এখান থেকে বালু উত্তোলন করে যাচ্ছেন কোন বাধা নিষেধও মানছেনা। স্থানীয় এলাকাবাসী বদরুল ইসলাম, মনাই মিয়া, নাজমুল ইসলাম জানান, “এ মেশিনের শব্দের কারনে বাড়ীতে থাকা অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে।
এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশেকুল হক জানান, বিষয়টি আমাকে কেউ জানায়নি, আমরা সরজমিনে গিয়ে প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

সর্বশেষ সংবাদ