September 15, 2019

চা-চক্র বর্জন নেতিবাচক রাজনীতির ধারা

বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যে চা চক্রের আয়োজন করেছেন বিএনপি ঐক্যফ্রন্ট সেখানে খোলামেলা আলাপ করতে পারেন। বিএনপি নেতিবাচক ধারা আঁকড়ে ধরায় তারা রাজনীতিতে খাদের কিনারায় পড়েছে।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘অতীতে ডাকসু নির্বাচনের ভোটকেন্দ্র ছিল হলগুলোতে। এ নিয়ে বিতর্কের কিছু নেই। ডাকসু নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে। শিক্ষার্থীরা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবে।’

বিএনপির উদ্দেশ্য তিনি বলেন, ‘সংসদ বর্জন করা দলের জন্য ক্ষতিকর। বিএনপি যদি সংসদ বর্জনের মানসিকতা ঘটায় তাহলে সেটা তাদের অস্তিত্বের জন্য ক্ষতিকর। তারা সংসদে গেলে বিরোধীদের কণ্ঠ ভারী হবে। বিএনপি সংসদে সংখ্যায় কম হলেও তারা জোরালো ভূমিকা রাখতে পারেন।’

অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘রাজনীতিতে জয় পরাজয় আছে। নেতিবাচক রাজনীতির ধারা অব্যাহত রাখলে বিএনপি বিদেশি বন্ধুও হারাবে। বিএনপির আন্দোলন দেশের জনগণ আগ্রহী নয়। গত দশ বছরে তারা কোনো আন্দোলন করতে পারেনি।

সর্বশেষ সংবাদ