December 15, 2018

কুলাউড়ায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন বিষয়ে সেমিনার

কুলাউড়া প্রতিনিধি : জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ বিষয়ে জনসচেতনা সৃষ্ঠির লক্ষে কুলাউড়ায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেমিনারে ভোক্তার অধিকার ও দায়িত্ব এবং ভোক্তা অধিকার বিরোধী কার্য ও অপরাধ এবং দণ্ড সম্বন্ধে বিভিন্ন বিষয়ের উপর আলোকপাত করা হয়। ৩ ডিসেম্বর সোমবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল লাইছের সভাপতিত্বে ও জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আল আমিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে উন্মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নেহার বেগম, সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সুলতান মাহমুদ, কৃষি কর্মকর্তা জগলুল হায়দার, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আইয়ুব উদ্দিন, টিলাগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মালিক, রাউৎগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল জামাল, কাদিপুর ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান ছালাম, ডাঃ সুলতান আহমদ, কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মইনুল ইসলাম শামীম, যুগ্ম সম্পাদক আতিকুর রহমান আখই, সাংবাদিক খালেদ পারভেজ বখশ্, ময়নুল হক পবন, সৈয়দ আশফাক তানভীর, ফার্মেসী ব্যবসায়ী মোঃ শেলুর রহমান প্রমুখ। এসময় উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি, বেসরকারী কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর মৌলভীবাজারের সহকারী পরিচালক আল আমিন বলেন, কোনো আইনের উদ্দেশ্যে জেল-জরিমানা না। যখন কেউ এই আইন লংঘন করে তখন সে অপরাধী হয়। বিভিন্ন দণ্ডে দণ্ডিত হয়। মানুষের ভূলটাকে সবাইকে জানানোর জন্য আমরা গণশুনানি করে থাকি। এ পর্যন্ত মৌলভীবাজার জেলায় ৭টি গণশুনানি সম্পন্ন করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানের সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল লাইছ বলেন, কাউকে জেল-জরিমানা করার জন্য এই আইন প্রণয়ন করা হয়নি। সবাইকে সচেতন করার জন্য এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে। বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিকরা প্রতি সপ্তাহে না হলে মাসে একবার কর্মচারীদের নিয়ে বসতে হবে। পণ্যের মেয়াদ আছে কি না, সেটা ভাল করে দেখে ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য ক্রেতা বিক্রেতাদের সচেতন হতে হবে।

সর্বশেষ সংবাদ