December 10, 2018

‘রাতে ঘুম নেই, আমি মরণের অপেক্ষায় আছি’

বিশেষ প্রতিনিধি : হীরালাল মাল। একজন চা শ্রমিক। বয়স ষাটের কোঠায়। কুলাউড়ার রাঙ্গীছড়া চা বাগানে একটি ছোট্ট খুপরি ঘরে তাঁর বসবাস। ভাগ্যের হাতে জীবন ছেড়ে দেওয়া এই মানুষটি এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। অথচ জীবনের অনেক ঘটনার জীবন্ত সাক্ষী তাঁর দু’চোখ। একজীবনে দেখেছেন মানুষের নিরন্তর সংগ্রাম করে বেঁচে থাকার লড়াই। আবার মানুষের প্রত্যক্ষ সংগ্রামের গল্প নিজেকেও করেছেন সস্পৃক্ত। আমাদের মুক্তিযুদ্ধেও তার অবদান ছিলো।

তখনকার নিতান্তই কিশোর বয়সে মুক্তিবাহিনীকে সহযোগিতা করেছেন নানা তথ্য-উপাত্ত দিয়ে।

বর্তমানে এই সংগ্রামী মানুষটি দুরারোগ্য ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত। তাঁর মুখের ডানদিকের দাঁতের সমস্যা থেকেই এ রোগের সৃষ্টি। স্থানীয় চিকিৎসক থেকে সর্বশেষ সিলেট ওসমানী মেডিকেলে চিকিৎসা নিয়ে এখন সর্বস্বান্ত হয়ে মৃত্যুর প্রহর গুনছেন। স্ত্রী রামরতী মাল বাগানে কাজ করে কোনরকমে সংসারটা ধরে রেখেছেন। ছোট মেয়েটি জেএসসি (জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট) পরীক্ষার্থী। এই অবস্থায় তার স্কুল যাওয়াও প্রায় বন্ধ। ছেলেটিও দিনমজুরি করছে।

সহায়হীন চোখে হীরালাল তার অভিব্যক্তি তুলে ধরে বলেন- ‘প্রায় ৪ মাস ধরে অনেক চেষ্টা করলাম কিন্তু পারলাম না। ছোটবড় মিলিয়ে ১৩টা গরু বিক্রি করেছি। সব আমার চিকিৎসায় ব্যয় হয়েছে। এখন আমার কিছুই নেই। ডাক্তার বলেছে ভারতে গিয়ে চিকিৎসা করাতে। প্রতিদিন আমার ১০০ টাকার ওষুধ লাগে। মুখে প্রচণ্ড ব্যথা। রাতে ঘুম নেই। আমি মরণের অপেক্ষায় আছি…।’

গুমরে ওঠা আর্তনাদের ভাষায় এখন হীরালালের রাত হয় দিন হয়। চিকিৎসাহীন পড়ে থাকা একজন সংগ্রামী চা শ্রমিকের এভাবে জীবন প্রদীপ নিভে যাক এটা কারও কাম্য হতে পারেনা। একটু সহায়তার জন্য চেয়ে আছেন বৃত্তমানদের দিকে।

সর্বশেষ সংবাদ